অমানবিক! অপরহরণের পর গণধর্ষণ, নির্যাতিতার পোশাকও নিয়ে গেল অভিযুক্তরা

নির্যাতিতা ওই নাবালিকাকে কেউ সাহায্য করতে এগিয়ে আসেননি, বরং তাঁর ভিডিও করতে ব্যস্ত ছিল

অমানবিক! অপরহরণের পর গণধর্ষণ, নির্যাতিতার পোশাকও নিয়ে গেল অভিযুক্তরা

আরোহী নিউজডেস্ক: এক কিশোরীকে অপরহরণ করে গণধর্ষণ করার পরও রেহাই দিল না অভিযুক্তরা। তাঁর পরনের পোশাক নিয়েই চম্পট দিল অত্যাচারীর দল। এখানেই শেষ নয়, নির্যাতিতা ওই নাবালিকাকে কেউ সাহায্য করতে এগিয়ে আসেননি, বরং তাঁর ভিডিও করতে ব্যস্ত ছিল জনতার একাংশ। বিবস্ত্র অবস্থায় ওই নাবালিকা প্রায় ২ কিলোমিটার হেঁটেছে। এই বর্বরোচিত ঘটনা ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মোরাদাবাদে।

সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা যাচ্ছে, ঘটনাটি প্রায় ২ সপ্তাহ আগের। তবে সম্প্রতি নেট মাধ্যমে ওই দৃশ্য ভাইরাল হয়। তার পরই বিতর্ক তৈরি হয় উত্তরপ্রদেশে। নিরাবরণ কিশোরীর ভিডিও তুলে নেটমাধ্যমে ছড়িয়ে দিতেই জানাজানি হয় ঘটনা। জানা যাচ্ছে, মোরাদাবাদ-ঠাকুরদ্বারা রাস্তা দিয়ে প্রায় দুই কিমি সম্পূর্ণ বিবস্ত্র অবস্থায় হেঁটে বাড়ি ফেরে ওই কিশোরী। অভিযোগ তাঁকে কেউ সাহায্য করতে এগিয়ে আসেননি। মোরাদাবাদ পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পাশের গ্রামে একটি মেলায় গিয়েছিল ওই ১৫ বছরের কিশোরী। সেখানে তাকে পাঁচ যুবক অপহরণ করে, তার পর তাকে গণধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ।

ওই নির্যাতিতার চিৎকার শুনেই কয়েকজন গ্রামবাসী এগিয়ে এসেছিলেন। তখনই তাঁর পোশাক নিয়ে চম্পট দেয় ওই পাঁচ যুবক। নির্যাতিতার পরিবারের অভিযোগ, গত ৭ সেপ্টেম্বর এই গণধর্ষণের অভিযোগ দায়ের হয়েছে। কিন্তু অভিযুক্তরা অধরা এখনও। যদিও মোরাদাবাদের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (গ্রামীণ) সন্দীপ কুমার মীনা বলেছেন, ‘‘ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ডি, পকসো আইনে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। একজন গ্রেফতার।