ইডি হেফাজত শেষ, আদালতের পথে পার্থ-অর্পিতা

বুধবার রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ও তাঁর ঘনিষ্টের ইডি হেফাজতের মেয়াদ শেষ

ইডি হেফাজত শেষ, আদালতের পথে পার্থ-অর্পিতা

আরোহী নিউজডেস্ক: এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে জেরা ও একই সময়ের মধ্যে তাঁর ঘনিষ্ট অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাট থেকে বিপুল পরিমান টাকা উদ্ধারের পর দুজনকেই গ্রেফতার করেছিল এনফোর্সমেন্ট ডাইরেক্টরেট বা ইডি। আদালত দুজনকে ৩ অগাষ্ট পর্যন্ত ইডি হেফাজতে পাঠিয়েছিল। আজ অর্থাৎ বুধবার রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ও তাঁর ঘনিষ্টের ইডি হেফাজতের মেয়াদ শেষ। ফলে এদিন দুজনকেই ব্যাঙ্কশাল কোর্টে নিয়ে যাওয়া হল। তবে অন্যদিনের তুলনায় আজ নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হয়েছে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, মঙ্গলবারই জোকা ইএসআই হাসপাতাল থেকে বের হওয়ার সময় পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে লক্ষ্য করে জুতো ছুঁড়ে মেরেছিলেন এক মহিলা। সেই কারণেই আজ যাতে কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি না হয় তার জন্য কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে আদাসত চত্বরে।

 

বুধবার বেলা সোয়া এগারোটা নাগাদ সিজিও কমপ্লেক্স থেকে বের করা হয় পার্থ এবং অর্পিতাকে। তাঁদের ইডির বিশেষ আদালতে হাজির করানো হবে। তবে জানা যাচ্ছে, জোকা ইএসআই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকেও তৈরি থাকতে বলা হয়েছিল ইডির তরফ থেকে। কিন্তু এদিন আদালতে হাজির করানোর আগেই দুজনকে ফের জোকা ইএসআই হাসপাতালে নিয়ে গেলেন ইডি আধিকারিকরা। সেখানেও রয়েছে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা। কাউকে কাছে ঘেঁষতে দেওয়া হচ্ছে না। এদিন ফের তাঁদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়ে চুরান্ত রিপোর্ট আদালতে জমা দিতে পারে ইডি। যাতে শারীরিক সমস্যা নিয়ে কোনও দাবি করতে না পারেন পার্থ বা অর্পিতা। আজ আদালতে ইডির তরফ থেকে ফের হেফাজত চাওয়া হবে কিনা সেই দিকেই নজর থাকবে রাজ্যবাসীর। কারণ রোজই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে ইডি। বুধবার সকালেই ইডির কয়েকটি দল কয়েকটি জেলায় গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ও তাঁর ঘনিষ্টকে নিজেদের হেফাডত নাকি জেল হেফাজতের আবেদন করে তার দিকেই তাকিয়ে গোটা রাজ্য।