স্বামীর কবরের পাশেই ঠাঁই হবে মহারানি এলিজাবেথের দেহ

১১ দিনের রাষ্ট্রীয় শোকজ্ঞাপনের শেষে সোমবার সম্পন্ন হবে মহারানির শেষকৃত্য

স্বামীর কবরের পাশেই ঠাঁই হবে মহারানি এলিজাবেথের দেহ

আরোহী নিউজডেস্ক; গত ৮ ই সেপ্টেম্বর প্রয়াত হন ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। স্কটল্যান্ডের রাজপ্রাসাদে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন ৯৬ বছরের রানি। ১১ দিনের রাষ্ট্রীয় শোকজ্ঞাপনের শেষে সোমবার সম্পন্ন হবে মহারানির শেষকৃত্য। ওয়েস্ট মিনিস্টার অ্যাবে থেকে ওয়েলিংটন গির্জায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার মধ্যে দিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে রানির কফিনবন্দি দেহ। শোভাযাত্রা শেষে সেন্ট জর্জ চ্যাপেলে স্বামী ফিলিপের কবরের পাশে সমাধিস্থ করা হবে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের দেহ। 

রানির প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানাতে রাস্তার দুইধারে হাজির থাকবে কাতারে কাতারে মানুষ। শহরের নিরাপত্তা বজায় রাখতে ইতিমধ্যে নিরাপত্তা বলয়ে মুড়ে ফেলা হয়েছে ব্রিটেনকে। কেবল সাধারণ মানুষই নয়, রানিকে শেষ বিদায় জানাতে উপস্থিত থাকবেন বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রনায়করা। সূত্রের খবর, জার্মানি, ইতালি, ব্রাজিল, জাপান, অস্ট্রেলিয়া- সহ বহু দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদেরকে আলাদাভাবে আমন্ত্রণ জানিয়েছে রাজপরিবার। যদিও রাজ তালিকায় নেই রুশ রাষ্ট্রপতি পুতিনের নাম।পুতিনের পাশাপশি তালিকা থেকে বাদ রাখা হয়েছে বেলারুশ ও মায়ানমারের রাষ্ট্রনেতাদেরও বলে সূত্রের খবর।

১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের আমন্ত্রিতের তালিকায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নাম থাকলেও পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি থাকায় তিনি উপস্থিত থাকতে পারবেন না। ভারত থেকে রানির শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে প্রতিনিধিত্ব করবেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু। ইতিমধ্যেই ব্রিটেনে পৌঁছে গেছেন তিনি। 

ল্যাঙ্কাস্টার হাউসে ডায়েরিতে নিজেদের শোকবার্তা লিপিবদ্ধও করবেন রাষ্ট্রনায়করা। রাষ্ট্রনেতাদের পাশাপশি এই মহাযাত্রায় উপস্থিত থাকবেন সমাজের বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তিত্বরা। ব্রিটেনের বিভিন্ন পার্ক, গির্জা, সিনেমা-হলে বড় পর্দা লাগিয়ে সরাসরি দেখানো হবে রানির অন্তিম যাত্রার দৃশ্য।